মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম খুলনার সুমাইয়া মোসলেম মীম

লেখক: সকাল বেলা ডেস্ক
প্রকাশ: ১০ মাস আগে

মেডিকেল কলেজ ভর্তি পরীক্ষায় সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে প্রথম হয়েছেন সুমাইয়া মোসলেম। তাঁর বাড়ি খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলা সদরে। ভর্তি পরীক্ষায় সুমাইয়া ৯২ দশমিক ৫ নম্বর পেয়েছেন। সব মিলিয়ে তাঁর মোট প্রাপ্ত নম্বর ২৯২ দশমিক ৫।

আজ মঙ্গলবার দেশের মেডিকেল কলেজ ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের এমবিবিএস প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়। সুমাইয়া খুলনা মেডিকেল কলেজে ভর্তি পরীক্ষা দিয়েছিলেন।

সুমাইয়া ডুমুরিয়া সরকারি বালিকা বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও খুলনার সরকারি মজিদ মেমোরিয়াল (এম এম) কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক পাস করেছেন। তাঁর বাবার নাম মোসলেম উদ্দীন সরদার। তিনি ডুমুরিয়া কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত।

ফল প্রকাশের পর প্রতিক্রিয়ায় সুমাইয়া মোসলেম বলেন, এমন সাফল্যের জন্য তিনি সৃষ্টিকর্তার কাছে কৃতজ্ঞ। মা-বাবাও অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছেন। তাঁদের মুখে হাসি ফোটাতে পেরে তিনি অনেক খুশি।

চিকিৎসক হওয়ার কোনো আগ্রহ ছিল না সুমাইয়ার। তবে মায়ের প্রবল ইচ্ছার কারণে মেডিকেল কলেজে ভর্তির প্রস্তুতি নেন। ওই প্রস্তুতিতে সাফল্য ধরা দিয়েছে তাঁর। সুমাইয়া বলেন, তিনি নিজেও কল্পনা করেননি দেশসেরা হবেন।

মেয়ের সাফল্যের জন্য তাঁর মায়ের পরিশ্রম বেশি বলে উল্লেখ করেন সুমাইয়ার বাবা মোসলেম উদ্দীন। সুমাইয়ার সাফল্যে তাঁদের স্বপ্ন পূরণ হয়েছে।

সুমাইয়ার বাবা মোসলেম উদ্দীন সরদার বলেন, সুমাইয়া পঞ্চম শ্রেণির পরীক্ষায় উপজেলায় প্রথম, জেএসসিতেও উপজেলায় প্রথম হয়েছিলেন। এসএসসি ও এইচএসসিতে পেয়েছেন গোল্ডেন জিপিএ-৫।

এবারের মেডিকেল কলেজ ভর্তি পরীক্ষায় পাস করেছেন ৭৯ হাজার ৩৩৯ জন শিক্ষার্থী। পাসের হার ৫৫ দশমিক ১৩ শতাংশ। ফল অনুযায়ী সরকারি কলেজে ১ হাজার ৮৮৫ জন ছাত্র ও ২ হাজার ৩৪৫ জন ছাত্রী ভর্তি হতে পারবেন।

ফল প্রকাশ অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের এমবিবিএস পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে হয়েছে। ছেলেদের তুলনায় মেয়েরা বেশি পাস করেছেন।